করোনায় দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯৯ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ৫:৪৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ৮, ২০২১

করোনায় দেশে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯৯ জনের মৃত্যু

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৯৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। করোনায় একদিনে এটি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু। একই সময় এ ভাইরাসে আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৬৫১ জন।আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

এর আগে গতকাল বুধবার দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে সর্বোচ্চ ২০১ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিল স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৯৯ জনের মৃত্যু নিয়ে দেশে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ১৫ হাজার ৭৯২ আর আক্রান্ত শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ লাখ ৮৯ হাজার ২১৯।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত এক দিনে আরটি–পিসিআর, জিন এক্সপার্ট ও র‍্যাপিড অ্যান্টিজেন মিলিয়ে ৬০৫টি সক্রিয় ল্যাবে ৩৬ হাজার ৮৫০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে করোনাভাইরাস পজিটিভ আসে ১১ হাজার ৬৫১ টি। নমুনা পরীক্ষার অনুপাতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত শনাক্তের হার ৩১ দশমিক ৬২ শতাংশ। আগের দিন এ হার ছিল ৩১ দশমিক ৩২ শতাংশ।

এই সময়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে ঢাকা বিভাগে। এ বিভাগে একদিনে মারা গেছেন ৬৫ জন। আর খুলনা বিভাগে ৫৫ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৩৭ জন, রাজশাহীতে ১৫ জন, বরিশালে তিনজন, সিলেটে পাঁচজন, রংপুরে নয়জন এবং ময়মনসিংহে দশজন মারা গেছেন।

মৃতদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন ১৪৫, বেসরকারি হাসপাতালে মারা ৪২ জন। বাসায় মারা গেছেন ১২ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃতদের মধ্যে পুরুষ ১৩৩ জন, আর নারী ৬৬ জন। বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, মৃত ২০১ জনের মধ্যে ষাটোর্ধ্ব ১০৭ জন, ৫১–৬০ বছর বয়সী ৪৭ জন, ৪১–৫০ বছর বয়সী ২৮ জন, ৩১–৪০ জন ছয়জন, ২১–৩০ বছর বয়সী নয়জন এবং ১১ থেকে ২০ বছর বয়সের মধ্যে মারা গেছেন দুইজন।

এ ছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড থেকে সেরে উঠেছেন ৫ হাজার ৮৪৪ জন রোগী। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত করোনা থেকে সেরে উঠেছেন ৮ লাখ ৫৬ হাজার ৩৪৬ জন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে প্রথম কোভিড আক্রান্ত শনাক্তের পর দ্রুত সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ে নভেল করোনাভাইরাস। বাংলাদেশে করোনাভাইরাস প্রথম শনাক্তের খবর জানানো হয় গত বছরের ৮ মার্চ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রথম মৃত্যুর খবর জানায় ১৮ মার্চ।